সর্বশেষ সংবাদ
ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রদলের কমিটি : ঘোষণা উপজেলার, বাতিল জেলার  » «   ক্রীড়া সংগঠক আব্দুল কাদিরের মায়ের ইন্তেকাল  » «   রণবীর-দীপিকা বিয়ে নভেম্বরে?  » «   যাদুকর ম্যারাডোনার পায়ের অবস্থা করুণ  » «   একটু আগেবাগেই শীতের আগমণ  » «   চট্টগ্রামে আইয়ুব বাচ্চুর জানাযা বাদ আছর  » «   রাবণ পোড়ানো দর্শনকারী ভিড়ের উপর দিয়ে ছুটে গেলো ট্রেন : নিহত ৬০  » «   গোলাপঞ্জে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন উদ্বোধন করলেন শিক্ষামন্ত্রী  » «   বিসর্জনের দিন সিলেটে আসনে ‘দেবী’  » «   বিভিন্ন পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে মেয়র আরিফ  » «   সিলেটে স্বয়ংক্রিয় কৃষি-আবহাওয়া স্টেশন স্থাপিত  » «   শীতে ত্বক সজীব রাখতে শাক-সবজি খান  » «   সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর সংস্কার হচ্ছে প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে  » «   কোম্পানীগঞ্জে টাস্কফোর্সের অভিযানে পেলোডার মেশিন জব্দ  » «   ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনে সরকারকে নোটিশ  » «  

১০ হাজার কোটি ডলার দুর্নীতির তদন্তে সৌদিতে আটক ২০১



1প্রান্ত ডেস্ক: সৌদি আরবে কমপক্ষে ১০ হাজার কোটি ডলার দুর্নীতি হয়েছে। দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল জানিয়েছেন, গত কয়েক দশক ধরে পরিকল্পিতভাবে বিপুল পরিমান অর্থ আত্মসাৎ করা হয়েছে। শনিবার ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান শুরু হয়।

অ্যাটর্নি জেনারেল শেইখ সৌদ আল মোজেব বলেছেন, শনিবার রাতে শুরু হওয়া দুর্নীতি বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে এখন পর্যন্ত ২০১ জনকে আটক করা হয়েছে।

তবে তিনি আটক হওয়া ব্যক্তিদের পরিচয় জানাননি। বিবিসির এক খবরে বলা হয়েছে, দুর্নীতি বিরোধী অভিযানের প্রথমদিনেই ১১জন প্রিন্স, চারজন মন্ত্রী, বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী এবং সাবেক মন্ত্রীকে আটক করা হয়। আটক হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন, ধনাঢ্য ব্যবসায়ী প্রিন্স আলওয়ালেদ বিন তালাল, প্রিন্স মিতেব বিন আবদুল্লাহ এবং তার ভাই প্রিন্স তুর্কি বিন আবদুল্লাহ।

শেইখ মোজেব বলেন, এদের বিরুদ্ধে অপরাধের শক্তিশালী প্রমাণ পাওয়া গেছে। তবে চলমান এই অভিযানে দেশের স্বাভাবিক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে কোনো প্রভাব পড়ছে না। শুধুমাত্র ব্যক্তিগত ব্যাংক অ্যাকাউন্টই জব্দ করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

শেইখ সৌদ আল মোজেব বলেন, ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে গঠিত দুর্নীতিবিরোধী নতুন কমিটি খুব দ্রুত উন্নতি করছে।

তিনি জানিয়েছেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২০৮ জন ব্যক্তিকে তলব করা হয়। এদের মধ্যে ৭ জনকে কোনো অভিযোগ ছাড়াই মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, দেশে বিশাল পরিমাণ দুর্নীতি হয়েছে। গত তিন বছরের তদন্ত থেকে আমরা ধারণা করছি, পরিকল্পিতভাবে গত কয়েক দশকে কমপক্ষে ১০ হাজার কোটি ডলার দুর্নীতি হয়েছে।

এর আগে দুর্নীতি বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ১ হাজার দুইশোর বেশি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ করে সৌদি। অর্থ পাচার, ঘুষ, চাঁদাবাজি এবং সরকারি কার্যালয় সুযোগ সুবিধা গ্রহণের মতো অভিযোগ এনে ব্যাংক একাউন্টগুলো জব্দ করা হয়।

Developed by: