সর্বশেষ সংবাদ
রাজ-শুভশ্রী এক বাঁধনে  » «   বাংলাদেশ নতুন যুগে প্রবেশ করেছে : প্রধানমন্ত্রী  » «   আগাম বন্যার আশঙ্কা  » «   ঈদে আসছে ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’  » «   বজ্রপাতে একদিনে সারাদেশে ৩০ জনের মৃত্যু  » «   জাতীয় অধ্যাপক মুস্তাফা নূরউল ইসলামের ইন্তেকাল  » «   জাতিসংঘ মিশন : সিলেটের ২০০ স্বপ্নবাজ তরুণের নেতৃত্বে হাওরসন্তান সোহাগ  » «   বিয়ানীবাজারে বুদ্ধি প্রতিবন্ধি যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার  » «   বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হচ্ছেন সোনম কাপুর আর আনন্দ আহুজা  » «   এসএসসি ফল পুনঃনিরীক্ষন শুরু : একাদশে ভর্তি ১৩ মে থেকে  » «   ষাঁড়ের গুতোয় কৃষকের মৃত্যু  » «   পা-ই তার সাফল্যের চাবিকাটি  » «   গাছ ভেঙে পড়ায় সিলেটের সাথে রেল যোগাযোগ বন্ধ  » «   এসএসসিতে সিলেটে পাস ৭০.৪২% : জিপিএ-৫ ৩১৯১ জন  » «   নিয়োগ চলছে কামা পরিবহন (প্রা. লি.)-এ।  » «  

লোদীর বাসায় মেয়র আরিফ: বিরোধের অবসান!



15স্টাফ রিপোর্টার: সিলেট সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র পদ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও প্যানেল মেয়র (১) রেজাউল হাসান কয়েস লোদীর মাঝে। সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া হত্যা মামলায় কারাগারে যাওয়ার আগে লোদীকে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব দিয়ে যাননি আরিফ। ১ম প্যানেল মেয়র হিসেবে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব না পেয়ে ক্ষুব্ধ হন লোদী। নগরভবনের ভেতরের এই দ্বন্ধ গড়ায় আদালত পর্যন্ত।

আদালতের রায় লোদীর পক্ষে গেলেও নানা কারণে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পাননি লোদী। সেই থেকে নগরভবনমুখীও হননি কয়েস লোদী। তাদের এই দ্বন্ধের ঢেউ লাগে রাজনীতিতেও। নিজ দলের দুই জনপ্রতিনিধির পরস্পরবিরোধী এই অবস্থান ভালোভাবে নেননি বিএনপি নেতারাও। কিন্তু গতকাল মঙ্গলবার সকালে হঠাৎ করে লোদীর হাউজিং এস্টেটের বাসায় হাজির হন আরিফ। লোদী ও তার মায়ের সাথে কুশল বিনিময় করেন তিনি। লোদীর বাসায় আরিফের গমনকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলররা। এর মধ্য দিয়ে দুইজনের মধ্যে দীর্ঘদিনের বিরোধের অবসান হয়েছে বলে করছেন নগরভবন সংশ্লিষ্টরা।

নগরভবনের এই দ্বন্ধে প্রায় তিনবছর মুখ দেখাদেখি বন্ধ ছিল আরিফ-লোদীর। কারাগার থেকে মুক্ত হওয়ার পরও আরিফের পাশে দেখা যায়নি লোদীকে। আগামী সিটি নির্বাচনে আরিফকে চ্যালেঞ্জ জানাতে মেয়র পদে প্রার্থীতা ঘোষণা দিয়ে প্রচারণাও চালিয়ে যাচ্ছিলেন লোদী। এ অবস্থায় গতকাল লোদীর বাসায় আরিফের যাওয়াকে নিয়ে তৈরি হয়েছে নতুন গুঞ্জন। অনেকে মনে করছেন নির্বাচনকে সামনে রেখে দলের মধ্যকার বিরোধ নিরসনের অংশ হিসেবে আরিফ বাসায় গিয়ে লোদীর মান ভাঙানোর চেষ্টা করেছেন।

এ ব্যাপারে সিলেট সিটি করপোরেশনের ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ বলেন, ‘মেয়র আরিফের সাথে কাউন্সিলর লোদীর কোন বিরোধ ছিল না। সহকর্মী কাউন্সিলরদের সাথেই মুলত তার বিরোধ ছিল। এনিয়ে নগরভবনে অনাস্থা প্রস্তাবও আনা হয়েছিল। তারপরও লোদীর বাসায় মেয়র আরিফ যাওয়ায় তাদের মধ্যে কোন ভুল বোঝাবুঝি থাকলে সেটারও অবসান হবে বলে মনেকরছি আমরা।’

এ ব্যাপারে সিটি করপোরেশনের ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও ১ম প্যানেল মেয়র রেজাউল হাসান কয়েস লোদী বলেন, ‘হঠাৎ করে মেয়র আরিফ আমার বাসায় আসেন। তিনি আমার ও আমার মায়ের সাথে কুশল বিনিময় করেছেন। ভারপ্রাপ্ত মেয়র পদ নিয়ে অতীতে ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলো অনাকাঙ্খিত বলে দাবি করেছেন। আরিফুল হকের কথা শুনে আমার মা অতীতের সবকিছু ভুলে যেতে বলেন।’ মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, হাউজিং এস্টেটে তার এক বন্ধুর বাসায় গিয়েছিলেন। ফেরার পথে তিনি কয়েস লোদীর বাসায় ওঠেন।

Developed by: