সর্বশেষ সংবাদ
রাজ-শুভশ্রী এক বাঁধনে  » «   বাংলাদেশ নতুন যুগে প্রবেশ করেছে : প্রধানমন্ত্রী  » «   আগাম বন্যার আশঙ্কা  » «   ঈদে আসছে ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’  » «   বজ্রপাতে একদিনে সারাদেশে ৩০ জনের মৃত্যু  » «   জাতীয় অধ্যাপক মুস্তাফা নূরউল ইসলামের ইন্তেকাল  » «   জাতিসংঘ মিশন : সিলেটের ২০০ স্বপ্নবাজ তরুণের নেতৃত্বে হাওরসন্তান সোহাগ  » «   বিয়ানীবাজারে বুদ্ধি প্রতিবন্ধি যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার  » «   বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হচ্ছেন সোনম কাপুর আর আনন্দ আহুজা  » «   এসএসসি ফল পুনঃনিরীক্ষন শুরু : একাদশে ভর্তি ১৩ মে থেকে  » «   ষাঁড়ের গুতোয় কৃষকের মৃত্যু  » «   পা-ই তার সাফল্যের চাবিকাটি  » «   গাছ ভেঙে পড়ায় সিলেটের সাথে রেল যোগাযোগ বন্ধ  » «   এসএসসিতে সিলেটে পাস ৭০.৪২% : জিপিএ-৫ ৩১৯১ জন  » «   নিয়োগ চলছে কামা পরিবহন (প্রা. লি.)-এ।  » «  

মিয়ানমারকে কড়া জবাব দেয়া হবে : আল-কায়েদা



notd7প্রান্ত ডেস্ক: রোহিঙ্গা নিপীড়নের জন্য মিয়ানমারকে কড়া জবাব দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী আল-কায়েদা। রোহিঙ্গা মুসলিমদের প্রতি সমর্থনের আহ্বান জানিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের এই জঙ্গিগোষ্ঠী বলছে, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত অপরাধের জন্য কঠিন ‘শাস্তি’ পেতে হবে মিয়ানমারকে।
গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইনে দেশটির পুলিশের ৩০টি তল্লাশি চৌকি ও একটি সেনা ক্যাম্পে হামলা চালায় রোহিঙ্গা বিদ্রোহীরা। এ হামলার জেরে রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনীর রোহিঙ্গা বিরোধী ক্লিয়ারেন্স অপারেশনে ৩ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢুকেছে।
২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে হামলার সঙ্গে জড়িত আল-কায়েদা এক বিবৃতিতে মিয়ানমারের মুসলিমদেরকে ত্রাণ, অস্ত্র ও সামরিক সমর্থন দিয়ে সহায়তায় এগিয়ে আসতে বিশ্বের মুসলিমদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।
জঙ্গি কার্যক্রম পর্যবেক্ষণকারী মার্কিন গ্রুপ সাইট ইনটেলিজেন্স আল-কায়েদার বিবৃতির বরাত দিয়ে বলছে, আমাদের মুসলিম ভাইয়েরা বর্বর হামলার সম্মুখীন হয়েছে…শাস্তি ছাড়া আমরা এই বিষয়টি ছেড়ে দেবো না।
‘মিয়ানমার সরকার আমাদের মুসলিম ভাইদেরকে যে ধরনের পরিস্থিতিতে ফেলেছে, তাদেরকেও একই ধরনের পরিস্থিতি ভোগ করতে হবে।’
মিয়ানমার সরকার বলছে, সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে দেশটির আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী বৈধ অভিযান পরিচালনা করছে। দেশটির পুলিশ, সেনাবাহিনী ও বেসামরিকদের ওপর হামলার অভিযোগে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর দাবি করেছে মিয়ানমার।
এদিকে, মিয়ানমারের প্রধান প্রধান শহরগুলোতে বোমা হামলা হতে পারে বলে সতর্ক দিয়েছে সরকার। এর মাঝেই আল-কায়েদা দেশটিকে কঠিন শাস্তি পেতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে।
আল-কায়েদার বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমরা বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও ফিলিপাইনে আমাদের মুজাহিদ ভাইদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি যে, মুসলিম ভাইদেরকে সহায়তা করতে বার্মার উদ্দেশ্যে বেরিয়ে পড়ুন। এজন্য প্রশিক্ষণ নেয়াসহ প্রতিরোধ গড়তে অন্যান্য প্রস্তুতিও সম্পন্ন করুন।
অন্যদিকে, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর যে সহিংসতা চলছে সেজন্য দক্ষিণ এশিয়াকে চরম মূল্য দিতে হতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছে মালয়েশিয়া। রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর অত্যাচার, নিপীড়নের ঘটনাকে কেন্দ্র করে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সমর্থকরা বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা চালাতে পারে বলে সতর্ক করেছেন মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী।
প্রতিরক্ষামন্ত্রী দাতুক সেরি হিসামুদ্দিন সতর্ক করে বলেছেন, জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট রাখাইনে শক্ত অবস্থান তৈরির পথ খুঁজছে। এজন্য সাম্প্রতিক সময়ে রোহিঙ্গা সংকটকে কেন্দ্র করেই তারা নিজেদের পরিকল্পনা তৈরি করতে পারে। রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর অমানবিক নির্যাতন চালাচ্ছে সেনাবাহিনী।

Developed by: