সর্বশেষ সংবাদ
চুনারুঘাটে দুপক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১  » «   মিয়ানমারে আবারও সেনা অভ্যুত্থানের শঙ্কা  » «   সিলেট বিভাগে সেরা র‍্যাংকিংয়ে এমসি কলেজ  » «   ফেনীতে মুসলমান শিক্ষককে খুন করলেন বৌদ্ধ সহকর্মী শিক্ষক !  » «   বায়োলজিক্যাল ঘড়ি কী, যে কারণে নোবেল পুরস্কার  » «   নগরীতে বিপুল পরিমাণ মাদক দ্রব্যসহ ২ শীর্ষ ব্যবসায়ী আটক  » «   চিকিৎসায় নোবেল পেলেন মার্কিন তিন বিজ্ঞানী  » «   সিলেটে বিদ্যুতের ডিজিটালাইজেশনের ফাঁদে দুই লাখ গ্রাহক!  » «   ঊর্ধ্বমুখী শেয়ারবাজারে বাড়ছে ঝুঁকি  » «   মৃত্যুর আগে পানি চেয়েও পায়নি কিশোর  » «   সিলেটে ৫৭৬ মণ্ডপে দুর্গাপূজা, থাকছে তিনস্তরের নিরাপত্তা  » «   জঙ্গি অর্থায়নের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১১ জনের নাম প্রকাশ  » «   মানবতা বিরোধী অপরাধে দোষী সাব্যস্ত সু চি-সেনাপ্রধান  » «   শাবির ভর্তি পরীক্ষা ১৮ নভেম্বর  » «   তিন ছেলে পুলিশ কর্মকর্তা, তবু ভিক্ষা করেন মা!  » «  

২০৫০ সালে বিশ্বের ২৩তম শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ হবে বাংলাদেশ



3প্রান্ত ডেস্ক: বিশ্বের পেশাজীবীদের সবচেয়ে বড় সংগঠন প্রাইসওয়াটারহাউসকুপারসের (পিডব্লিউসি) করা এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ২০৫০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের অর্থনীতির আকার দাঁড়াবে ৩ ট্রিলিয়ন ৬৪ বিলিয়ন বা তিন লাখ ছয় হাজার চারশ’ কোটি ডলার।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ওই সময়ে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী অর্থনীতির ৩২টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান হবে ২৩তম। ‘মোটা দাগে ২০৫০ সাল নাগাদ বৈশ্বিক অর্থনীতি কিভাবে বদলে যাবে’ শীর্ষক ওই প্রতিবেদনে আগামী ৩৩ বছরে বিশ্বের কোন দেশগুলো সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক শক্তিতে পরিণত হবে তা নিয়ে আলোকপাত করা হয়েছে। পারচেজিং পাওয়ার প্যারিটি (পিপিপি) বা ক্রয়ক্ষমতার সক্ষমতার ভিত্তিতে সামষ্টিক অর্থনীতিবিদরা একটি নির্দিষ্ট সময়ে বিশ্বের দেশগুলোর অর্থনৈতিক উৎপাদন ক্ষমতা ও জীবন মানের বিচার করে ৩২টি শক্তিশালী অর্থনীতির দেশের তালিকা করেছেন।

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, আমরা বর্তমানে যে পৃথিবীকে জেনে আসছি ২০৫০ সাল নাগাদ তার আগাপাশতলা আমূল বদলে যাবে। আর এ সময়ে বিশ্ব অর্থনীতির জগতটাও যে বদলে যাবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০৫০ সালে বিশ্বের সবচেয়ে বড় অর্থনীতির দেশে পরিণত হবে চীন। এরপরের স্থানে যথাক্রমে থাকবে ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, ইন্দোনেশিয়া ও ব্রাজিল।

যুক্তরাষ্ট্রকে বাদ দিলে জাপান ও জার্মানির মতো শক্তিশালী অর্থনীতির দেশগুলো ২০৫০ সাল নাগাদ বৈশ্বিক তালিকায় পেছনের দিকে চলে যাবে এসব দেশ। তাদের জায়গায় চলে আসবে ভারত ও ইন্দোনেশিয়ার মতো উদীয়মান অর্থনৈতিক শক্তিগুলো।

৩২. নেদারল্যান্ডস ১.৪৯৬ ট্রিলিয়ন ডলার
৩১. কলম্বিয়া ২.০৭৪ ট্রিলিয়ন ডলার
৩০. পোল্যান্ড ২.১০৩ ট্রিলিয়ন ডলার
২৯. আর্জেন্টিনা ২.৩৬৫ ট্রিলিয়ন ডলার
২৮. অস্ট্রেলিয়া ২.৫৬৪ ট্রিলিয়ন ডলার
২৭. দক্ষিণ আফ্রিকা ২.৫৭০ ট্রিলিয়ন ডলার
২৬. স্পেন ২.৭৩২ ট্রিলিয়ন ডলার
২৫. থাইল্যান্ড ২.৭৮২ ট্রিলিয়ন ডলার
২৪. মালয়েশিয়া ২.৮১৫ ট্রিলিয়ন ডলার
২৩. বাংলাদেশ ৩.০৬৪ ট্রিলিয়ন ডলার
২২. কানাডা ৩.১ ট্রিলিয়ন ডলার
২১. ইতালি ৩.১১৫ ট্রিলিয়ন ডলার
২০. ভিয়েতনাম ৩.১৭৬ ট্রিলিয়ন ডলার
১৯. ফিলিপাইন্স ৩.৩৩৪ ট্রিলিয়ন ডলার
১৮. দক্ষিণ কোরিয়া ৩.৫৩৯ ট্রিলিয়ন ডলার
১৭. ইরান ৩.৯০০ ট্রিলিয়ন ডলার
১৬. পাকিস্তান ৪.২৩৬ ট্রিলিয়ন ডলার
১৫. মিসর ৪.৩৩৩ ট্রিলিয়ন ডলার
১৪. নাইজেরিয়া ৪.৩৪৮ ট্রিলিয়ন ডলার
১৩. সৌদি আরব ৪.৬৯৪ ট্রিলিয়ন ডলার
১২. ফ্রান্স ৪.৭০৫ ট্রিলিয়ন ডলার
১১. তুরস্ক ৫.১৮৪ ট্রিলিয়ন ডলার
১০. যুক্তরাজ্য ৫.৩৬৯ ট্রিলিয়ন ডলার
৯. জার্মানি ৬.১৩৮ ট্রিলিয়ন ডলার
৮. জাপান ৬.৭৭৯ ট্রিলিয়ন ডলার
৭. মেক্সিকো ৬.৮৬৩ ট্রিলিয়ন ডলার
৬. রাশিয়া ৭.১৩১ ট্রিলিয়ন ডলার
৫. ব্রাজিল ৭.৫৪০ ট্রিলিয়ন ডলার
৪. ইন্দোনেশিয়া ১০.৫০২ ট্রিলিয়ন ডলার
৩. যুক্তরাষ্ট্র ৩৪.১০২ ট্রিলিয়ন ডলার
২. ভারত ৪৪.১২৮ ট্রিলিয়ন ডলার
১. চীন ৫৮.৪৯৯ ট্রিলিয়র ডলার

Developed by: