সর্বশেষ সংবাদ
সুরমা নদীর তীর দখলে খোদ সিটি করপোরেশন  » «   কেন বাদ দেয়া হলো মুমিনুলকে?  » «   নাটকে একসঙ্গে তিন বন্ধু  » «   ৬ দিন হচ্ছে ঈদের ছুটি  » «   গোয়াইনঘাটের সাড়ে তিন লক্ষ মানুষ পানি বন্দি  » «   ‘নিহত জঙ্গি ছাত্র শিবির করতো, ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে হামলার পরিকল্পনা ছিল’  » «   প্রতিবছর লাখ লাখ শিশু হারিয়ে যায় কেন?  » «   পরিবহন জটিলতায় কৈলাশটিলা গ্যাস ফিল্ডে অচলাবস্থা  » «   গোলাপগঞ্জে যুবক অপহরণ, প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ  » «   নৌকা যাদের ভরসা  » «   শাহ্জালাল মাজারে বখাটে কর্তৃক মহিলাদের হয়রানীর অভিযোগ  » «   রুবির সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছে পিবিআই  » «   সিলেটে ২ ছাত্রলীগ কর্মীর উপর হামলার ঘটনায় ছাত্রশিবিরের বিবৃতি  » «   সিলেটে সবজির দাম বেড়েছে  » «   টিলা খেকোদের নিয়ন্ত্রনে সিলেট পরিবেশ অধিদপ্তর  » «  

শাহ্জালাল মাজারে বখাটে কর্তৃক মহিলাদের হয়রানীর অভিযোগ



6স্টাফ রিপোর্টার: হযরত শাহজালাল (রঃ) মাজারে আসা মহিলা ভক্তদের নানা ভাবে হয়রানি করছে একশ্রেনীর বখাটে। সাধারন মুসল্লিদের বেশে এসকল বখাটে নিজেদের পুলিশ, ছাত্র কিংবা র‌্যাবের পরিচয় দিয়ে মাজারে আসা মহিলাদের পরিচয় জানতে চেয়ে হয়রানী করছে। অভিযোগ রয়েছে বখাটেরা কোন কোন মহিলাকে নানান অশ্লিন কতাবার্তা বলে তাদেরকে ভয়ভীতি দেখায়। মঙ্গলবার (৮ আগষ্ঠ) মাজারে যাওয়া কয়েকজন মহিলা ও তরুনী এসকল বখাটে কর্তৃক হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে জানাযায়। তারা জানান মাজার প্রঙ্গনে প্রবেশ করা মাত্র মাথার চুল ছুট এবং শুদ্ধভাষায় কথা বলা কয়েকজন বখাটে যুবক এগিয়ে এসে নিজেদের পুলিশ পরিচয় দিয়ে নানান প্রশ্ন করে হয়রানী করতে থাকে। এসময়ে ঐ যুবকদের বখাটেপনায় বিরক্ত হয়ে একপর্যায়ে মহিলারা তাদের আত্মীয় স্বজনকে মোবাইলে বিষয়টি জানাতে থাকলে বখাটেরা কেটেপড়ে। একজন আওলিয়ার মাজার এলাকায় প্রকাশ্য দিবালোকে প্রতিদিন এধরনের বখাটেপনা ঘটতে থাকলেও আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রনে রাখার দ্বায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যরা থাকেন অন্য ধান্দায়। সারাদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রতিদিন হাজার হাজার ভক্ত হযরত শাহজালাল (রঃ) মাজার জিয়ারতে আসেন। কিন্তু তারা মাজারে এসে চোর, ছিনতাইকারী ও বখাটেদের কবলে পরে নানা ধরনের হয়রানীর শিকার হন। বিভিন্ন সুত্রে জানাযায়, মাজার এলাকায় রয়েছে একাদিক চোর, ছিনতাইকারী ও বখাটেচক্র। মাজার কমিটি ও পুলিশের চেনাজানা এসকল অপরাধিরা শাহজালাল মাজারে তাদের অপরাধ কর্মকান্ড দিব্যি চালিয়ে যাচ্ছে। এদের হাতে হয়রানীর শিকার হয়ে অনেকে বিষয়টি মাজার কমিটি ও পুলিশকে জানালেও কার্য্যতর কোন প্রদক্ষেপ নেয়া হচ্ছেনা। একারনে মাজারে আসা ভক্ত ও মুসল্লীদের সংখ্যা দিন দিন কমে যাচ্ছে। বিষয়টির প্রতি সিলেটের পুলিশ প্রশাসন ও সুশীলসমাজ জরুরী ভিত্তিতে নজর দেয়া প্রয়োজন বলে নগরবাসী মনে করছেন।

Developed by: