সর্বশেষ সংবাদ
এ্যাকশনে পুননির্বাচিত আরিফ  » «   ঈদের আগে খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করেছে বিএনপি  » «   সমকাল সম্পাদককে শেষ শ্রদ্ধা  » «   অনবদ্য তামিম ইকবাল  » «   ওরা এখনো নজরকাড়া  » «   শাবিপ্রবি’র হল বন্ধ  » «   সিলেটে ২১ আগষ্ট থেকে ৫ দিন বন্ধ বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার রিচার্জ  » «   ইকুয়েডরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২৪ জন নিহত  » «   ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন হ্যাক করা অত্যন্ত সহজ!  » «   সারা’র রুপে মুগ্ধ সবাই  » «   আবারও সিলেটে অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু কাপ  » «   সিলেটে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি  » «   প্রতিদ্বন্দ্বি যখন যমজ বোন  » «   বিএনপি নির্বাচন বানচালের চক্রান্ত করছে : কাদের  » «   পঁচাত্তরে যেমন ছিল বাংলাদেশ  » «  

বন্যাক্রান্ত মানুষ অনাহারে দিন অতিবাহিত করছে : সরকারি পদক্ষেপ জরুরি



পাহাড়ী ঢল ও ভারি ভর্ষণে দেশের ১৩টি জেলা প্লাবিত হয়েছে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী আরো কয়েকদিন ভারি বর্ষণ হতে পারে এবং প্লাবিত হতে পারে আরো কয়েকটি জেলা। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে প্লাবিত ১৩ জেলায় সাড়ে ৬ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দেশের উত্তর ও উত্তরপূর্বাঞ্চলের ৪৫ উপজেলার কয়েক লাখ লোক এখনও পানিবন্দি। বাড়ি ঘর ডুবে যাওয়ায় অনেক হয়েছেন নিরাশ্রয় আর পানি উঠায় বন্ধ রয়েছে কয়েক শত বিদ্যালয়।
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রীর প্রদত্ত তথ্য মতে ৩ জুলাই থেকে ১১ জুলাই পর্যন্ত ১৩ জেলায় মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে চার হাজার মেট্রিকটন চাল, এক কোটি ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও ১৮ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বরাদ্ধ করা হয়েছে। মন্ত্রীর প্রদত্ত তথ্য মতে সরকারি পরিসংখ্যানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ যে পরিমাণ চাল, টাকা ও শুকনো খাবার পেয়েছেন তাতে মানুষের জীবন রক্ষা হবে কি না তা আমাদের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রানমন্ত্রী, সংগ্রামী রাজনৈতিক নেতা, মুক্তিযোদ্ধা, বঙ্গবন্ধুর শিষ্য মোফাজ্জেল হোসেন মায়া  বুঝেন না তা বলা পাগলামি, বোকামি ছাড়া কিছুই নয়।
অভিজ্ঞজনরা মন্ত্রীর প্রদত্ত তথ্যের আলোকে বলছেন, বন্যাক্রান্ত মানুষ অনারে দিন অতিবাহিত করছে। আমরাও বন্যাক্রান্ত মানুষকে বাঁচাতে ত্রাণ কার্যক্রম আরো জোরদার করতে সরকারকে আহবান জানাই একই সাথে বন্যা সমস্যার স্থায়ী সমাধানে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে সরকাকে অনুরোধ করছি।

Developed by: