সর্বশেষ সংবাদ
ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রদলের কমিটি : ঘোষণা উপজেলার, বাতিল জেলার  » «   ক্রীড়া সংগঠক আব্দুল কাদিরের মায়ের ইন্তেকাল  » «   রণবীর-দীপিকা বিয়ে নভেম্বরে?  » «   যাদুকর ম্যারাডোনার পায়ের অবস্থা করুণ  » «   একটু আগেবাগেই শীতের আগমণ  » «   চট্টগ্রামে আইয়ুব বাচ্চুর জানাযা বাদ আছর  » «   রাবণ পোড়ানো দর্শনকারী ভিড়ের উপর দিয়ে ছুটে গেলো ট্রেন : নিহত ৬০  » «   গোলাপঞ্জে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন উদ্বোধন করলেন শিক্ষামন্ত্রী  » «   বিসর্জনের দিন সিলেটে আসনে ‘দেবী’  » «   বিভিন্ন পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে মেয়র আরিফ  » «   সিলেটে স্বয়ংক্রিয় কৃষি-আবহাওয়া স্টেশন স্থাপিত  » «   শীতে ত্বক সজীব রাখতে শাক-সবজি খান  » «   সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর সংস্কার হচ্ছে প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে  » «   কোম্পানীগঞ্জে টাস্কফোর্সের অভিযানে পেলোডার মেশিন জব্দ  » «   ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনে সরকারকে নোটিশ  » «  

গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র উপ-নির্বাচন : ফল স্থগিতের দাবি পাপলুর



127828
গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি
কারচুপির অভিযোগ এনে গোলাপগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের ফল স্থগিতের দাবী জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী সাবেক মেয়র জাকারিয়ার আহমদ পাপলু। সোমবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবরে এক লিখিত অভিযোগের মাধ্যমে ফল স্থগিতের দাবি জানান তিনি।
জাকারিয়া আহমদ পাপলু লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, ‘বিগত ৩ অক্টোবর গোলাপগঞ্জ পৌরসভার উপনির্বাচনে কয়েকটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণে অনিয়ম হয়েছে। এর মধ্যে পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডে জহির আলী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ৫নং ওয়ার্ডের দাঁড়িপাতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কয়েক শ প্রবাসী এবং মৃত ব্যাক্তিদের ভোট দেয়া হয়। ২২৫ জন প্রবাসী এবং মৃত ভোটার শনাক্ত করে অভিযোগের সাথে তার তালিকাও জমা দিয়েছেন তিনি।’ এরকম ‘ভুয়া ভোটসহ জাল ভোটের সংখ্যা এক হাজার’ বলে উল্লেখ করেন পাপলু। এছাড়া বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র থেকে তাঁর এজেন্ট বের করে দিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুল ইসলাম রাবেলের পক্ষে জাল ভোট দেবার অভিযোগও আনেন তিনি।
পাপলু আরো অভিযোগ করেন, ‘‘পৌরসভার ৪, ৫, ৬ ও ৭ নং ওয়ার্ডের কেন্দ্র থেকে তাঁর এজেন্ট বের করে দিয়ে প্রশাসনের যোগসাজশে ভোট দেয়া হয় এবং তা ‘জগ’ প্রতীকের পক্ষে গণনা করা হয়। নির্বাচনের দিন প্রিজাইডিং অফিসারের কাছে একাধিকবার অভিযোগ করা হলেও তাঁরা তা আমলে না নিয়ে তাঁর এজেন্টদের অনুপস্থিতিতেই ভোট গণনা সম্পন্ন করেন।’’
এর আগে গোলাপগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনের দিন রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর আরেকটি অভিযোগ দেন পাপলু। সেই অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, আমিনুল ইসলাম রাবেল ও অপর প্রার্থী মহিউস সুন্নাহ নার্জিস বহিরাগত লোকজন নিয়ে এসে কেন্দ্র দখলের পাঁয়তারা এবং ভোটারদের হুমকিধামকি প্রদর্শন করছেন।
অভিযোগ প্রসঙ্গে জাকারিয়া আহমদ পাপলু বলেন, ‘এরকম নগ্ন হস্তক্ষেপ এর আগে গোলাপগঞ্জের কোনো নির্বাচনে দেখা যায় নি। প্রসাশনকে সাথে নিয়ে একজন স্বতন্ত্রপ্রার্থী যেভাবে ভোট লুটের উৎসবে মেতে উঠেছিলেন তা গোলাপগঞ্জের ইতিহাসে নজিরবিহীন। মৃত ভোটাররা এসে ভোট দিয়ে গেছেন আর প্রিজাইডিং কর্মকর্তা তা গণনাও করেছেন, যা অবিশ্বাস্য।’
প্রসঙ্গত, গত ৩ অক্টোবর গোলাপগঞ্জ পৌরসভার উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচনে ৪১৪৯ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন আওয়ামী লেিগর বিদ্রোহী প্রার্থী আমিনুল ইসরাম রাবেল। ৩৯৫৭ ভোট পেয়ে তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন আওয়ামী লীগের জাকারিয়া আহমদ পাপলু।

Developed by: