সর্বশেষ সংবাদ
ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রদলের কমিটি : ঘোষণা উপজেলার, বাতিল জেলার  » «   ক্রীড়া সংগঠক আব্দুল কাদিরের মায়ের ইন্তেকাল  » «   রণবীর-দীপিকা বিয়ে নভেম্বরে?  » «   যাদুকর ম্যারাডোনার পায়ের অবস্থা করুণ  » «   একটু আগেবাগেই শীতের আগমণ  » «   চট্টগ্রামে আইয়ুব বাচ্চুর জানাযা বাদ আছর  » «   রাবণ পোড়ানো দর্শনকারী ভিড়ের উপর দিয়ে ছুটে গেলো ট্রেন : নিহত ৬০  » «   গোলাপঞ্জে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন উদ্বোধন করলেন শিক্ষামন্ত্রী  » «   বিসর্জনের দিন সিলেটে আসনে ‘দেবী’  » «   বিভিন্ন পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে মেয়র আরিফ  » «   সিলেটে স্বয়ংক্রিয় কৃষি-আবহাওয়া স্টেশন স্থাপিত  » «   শীতে ত্বক সজীব রাখতে শাক-সবজি খান  » «   সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর সংস্কার হচ্ছে প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে  » «   কোম্পানীগঞ্জে টাস্কফোর্সের অভিযানে পেলোডার মেশিন জব্দ  » «   ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনে সরকারকে নোটিশ  » «  

বিশ্বনাথে উপজেলায় ‌’সহকারী শিক্ষক’ পদে ভুয়া সনদে বহিরাগতদের পরীক্ষার অভিযোগ



126088
বিশ্বনাথ প্রতিনিধি
বিশ্বনাথ উপজেলা ‘সহকারী শিক্ষক’ নিয়োগ-এর মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী ৭৬ জনের মধ্যে প্রায় ৩৫ জনই ছিলেন বগিরাগত- এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে।  অভিযোগ আছে- যারা জালিয়াতি করে ভুয়া নাগরিক সনদ নিয়ে মৌখিক পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করে। স্থানীয় প্রার্থীরা বিষয়টি জানতে পেরে সংশ্লিস্ট কর্মকর্তাদের কাছে অভিযোগ করলে সাথে সাথেই মৌখিক পরীক্ষার কেন্দ্র থেকে ‘মুকিবুর রহমান (রোলনং ৫৩২০৫২৬) ও আহসান উল্লাহ (রোলনং ৫৩২০৫২৫)’ নামের দুই পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়।
স্থানীয় প্রার্থীদের অভিযোগ, যে ২৫ জন প্রার্থী মৌখিক পরীক্ষায় চুড়ান্তভাবে উত্তীর্ন হয়েছেন সঠিক তদন্ত হলে এই ২৫ জনের  মধ্যেই ১০/১২ জনকে পাওয়া যাবে যারা জালিয়াতি করে ভুয়া নাগরিক সনদ সংগ্রহ করেছে। যে কারণে স্থানীয় প্রার্থীরা তদন্ত সাপেক্ষে বহিরাগতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মৌখিক পরীক্ষা হওয়ার সাথে সাথেই ‘সিলেট বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)’সহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে ‘৩ জন (সঞ্জয় তালুকদার-৫৩২০১৭১, শায়ান চন্দ্র তালুকদার-৫৩২০২৩৪, জাহিদুল হাসান-৫৩১৩০১৮) বহিরাগত প্রার্থীর নাম ও রোল নং’ উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
স্থানীয় প্রার্থীদের সেই লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ১৫ সেপ্টেম্বর ‘জেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল মোন্তাকিম’র নেতৃত্বে ২ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি বিষয়টি যাচাই-বাছাই করে। তদন্ত কমিটির অপর সদস্য ছিলেন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মহিউদ্দিন আহমদ। তদন্তে স্থানীয় প্রার্থীদের অভিযোগ শতভাগ সত্য মর্মে তদন্ত কমিটিকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন ‘বিশ্বনাথ সদর ও রামপাশা’ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ।
স্থানীয় প্রার্থীদের আরও অভিযোগ, ৩ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার পর আমরা আরও কয়েক জন বহিরাগত প্রার্থীর নাম ও রোলনং পেয়েছি। তারা আখিঁ বণিক (রোলনং ৫৩১৬৪৮৫), তমা মিস্ত্রি (রোলনং ৫৩২১২৩৭), সুনিতা শর্মা’সহ আরোও বেশ কয়েকজন। তাদের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য আমরা পূর্বে ন্যায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করব।
চুড়ান্তভাবে উত্তীর্ন প্রার্থীদের প্রদান করা নাগরিক সনদ’সহ সকল কাগজপত্র সঠিকভাবে পুনঃরায় তদন্ত করে নিয়োগ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করার দাবী জানিয়েছেন স্থানীয় প্রার্থীরা। কারণ বহিরাগতরা অবৈধ পদ্ধতি অবলম্বন করে চাকুরী গ্রহন করে। আর নিয়োগ স্থায়ী হওয়ার পর নিজ নিজ এলাকায় চলে যায়, ফলে বিশ্বনাথে শিক্ষক সংকট থেকেই যায়। তাই সঠিকভাবে তদন্ত করে স্থানীয়রা চাকুরী পেলে বিশ্বনাথের শিক্ষক সংকট কমে যাবে।
এদিকে, তদন্তে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে বিশ্বনাথ উপজেলার স্থানীয় প্রার্থীদের করা অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে দাবী করে তদন্ত কমিটির প্রধান জেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল মোন্তাকিম বলেন, সঞ্জয় তালুকদার ও শায়ান চন্দ্র তালুকদার বিশ্বনাথ সদর ইউপির এবং জাহিদুল হাসান রামপাশা ইউপির স্থায়ী নাগরিক নয় মর্মে সংশ্লিস্ট ইউপি চেয়ারম্যানরা লিখিতভাবে জানিয়েছেন। আর তিন জন জালিয়াতি করে ভুয়া নাগরিক সনদ তৈরী করেছেন বলেও অভিযোগ করেছেন চেয়ারম্যানরা। আর কারও বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ পাওয়া গেলে তাও তদন্ত করা হবে।
উল্লেখ্য, প্রতি বছরের ন্যায় এবছরের ২৬ জুন অনুষ্ঠিত (২০১৪ সালের স্থগিতকৃত) ‘সহকারী শিক্ষক’ নিয়োগ পরীক্ষায়ও বহিরাগতদের দাপট রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারীদের মধ্যে প্রাথমিকভাবে ৭৬ জন পরীক্ষার্থী উত্তীর্ন হন। এই ৭৬ জনের মধ্যে ২ ও ৪ আগস্ট অনুষ্ঠিত মৌখিক পরীক্ষায় ২৫ জন প্রার্থী চুড়ান্তভাবে উত্তীর্ন হন। এই ২৫ জনের মধ্যে ৫ জন পুরুষ ও ২০ জন নারী।

Developed by: