সর্বশেষ সংবাদ
খালেদার চিকিৎসা বিষয়ক রিটের শুনানি ১ অক্টোবর  » «   হবিগেঞ্জ প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি : হামলায় নারী আহত  » «   শিল্পা শেঠি বৈষম্যের শিকার!  » «   মেসি’র বিস্ময়কর কাণ্ড  » «   মাছের পেটে ৬১৪ পিস ইয়াবা!  » «   সিলেটে বসছে আন্তর্জাতিক ফুটবলের আসর  » «   নিজের ছবির নায়িকা রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে মহেশ ভাটরিয়া চক্রবর্তী ঘনিষ্ঠ!  » «   এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ : ভিয়েতনামকে হারিয়ে গ্রুপসেরা বাংলাদেশের মেয়েরা  » «   বিসিবির প্রধান নির্বাচক নান্নুর বাসায় চুরি  » «   ঢাকায় সামার ওপেন ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতার সুপার সিক্সটিন পর্ব : সিলেটী-সিলেটী লড়াই  » «   আটক চার ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর  » «   জগন্নাথপুরের রুহুল আমিন ইতালিতে দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত  » «   জিয়াদের পরিবারকে খুঁজছে সিলেট কোতোয়ালি পুলিশ  » «   বন্য হাতির আক্রমণে কুলাউড়ার যুবদল নেতার মৃত্যু  » «   এ কী বললেন পপি!!!  » «  

এ্যাকশনে পুননির্বাচিত আরিফ



62885
প্রান্ত ডেস্ক
সিলেট নগরীর রায়নগরে মহানগর পুলিশ সদস্য কর্তৃক দখলকৃত জায়গার ওপর গড়ে উঠা স্থাপনা ভাঙলেন সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) সদ্য নির্বাচিত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।
বৃহস্পতিবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে পুলিশের সহযোগিতায় রায়নগরের রাজবাড়ী আবাসিক এলাকায় সরকারী শিশু সদনের উল্টোদিকের এ অবৈধভাবে স্থাপনাটি ভাঙেন তিনি।
অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য হচ্ছেন আবুল খায়ের; তিনি মহানগর পুলিশের সিটি এসবি ব্রাঞ্চে রয়েছেন। প্রথম নির্বাচিত হওয়ার পরে আবুল খায়ের মেয়র আরিফের গানম্যান হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন।
এ ব্যাপারে সদ্য নির্বাচিত সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, “আমি যখন নির্বাচনের কাজে ব্যস্ত ছিলাম তখন সে (আবুল খায়ের) আমার নাম ভাঙিয়ে জায়গাটি দখল করে একটি টিনশেড ঘর বানিয়ে এক নারীকে তুলেন এবং এ জায়গায় অবৈধ গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগও ব্যবহার করেছে সে।”
তবে এসময় সেই পুলিশ সদস্য আবুল খায়েরকে ঘটনাস্থলে দেখা যায়নি। স্থাপনা ভাঙার সময় বিপুল সংখ্যক এলাকাবাসী ও স্থানীয় কাউন্সিলর এবিএম জিল্লুর রহমান উজ্জ্বল ঘটনাস্থলে ছিলেন।
এদিকে নাজমুল হক নামে রায়নগরের স্থানীয় এক বাসিন্দা দাবি করেছেন, জায়গাটির মালিক তিনি। তার বাসার ঠিক পূর্বপাশের ভূমির মালিক সদ্য নির্বাচিত সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। আরিফুল হক চৌধুরী তাঁর নিজস্ব জায়গাতে দালান নির্মাণ করছেন। নির্মাণ শ্রমিকদের অস্থায়ী বসবাসের জন্য আরিফ অনুরোধ করে আমার জমিতে অস্থায়ী শেড নির্মাণ করেছিলেন। এখন তিনি এটি ভেঙে দিচ্ছেন।
এর আগে একদল পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আরিফুল হক চৌধুরীকে স্থাপনা ভাঙার কাজ বন্ধ রাখতে অনুরোধ করেন। তখন আরিফুল হক চৌধুরী তাদের বলেন- জায়গার মালিককে অনুরোধ করে এখানে শ্রমিকদের জন্য অস্থায়ী শেড করেছিলাম। আমি নির্বাচনী কাজে ব্যস্ত থাকায় আবুল খায়ের আমার নাম ভাঙিয়ে এই জায়গাটি দখলের চেষ্টা করেছেন। আমি খবর পেয়ে এখানে এসেছি।
পরে বেলা পৌনে ১ টার দিকে সিলেট সিটি করপোরেশনের একটি বুলডোজার দিয়ে আধাপাকা স্থাপনাটি ভেঙে ফেলা হয়।

Developed by: