সর্বশেষ সংবাদ
নিজের ছবির নায়িকা রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে মহেশ ভাটরিয়া চক্রবর্তী ঘনিষ্ঠ!  » «   এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ : ভিয়েতনামকে হারিয়ে গ্রুপসেরা বাংলাদেশের মেয়েরা  » «   বিসিবির প্রধান নির্বাচক নান্নুর বাসায় চুরি  » «   ঢাকায় সামার ওপেন ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতার সুপার সিক্সটিন পর্ব : সিলেটী-সিলেটী লড়াই  » «   আটক চার ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর  » «   জগন্নাথপুরের রুহুল আমিন ইতালিতে দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত  » «   জিয়াদের পরিবারকে খুঁজছে সিলেট কোতোয়ালি পুলিশ  » «   বন্য হাতির আক্রমণে কুলাউড়ার যুবদল নেতার মৃত্যু  » «   এ কী বললেন পপি!!!  » «   ওয়াকারের সর্বকালের সেরা একাদশে যারা  » «   যে পাঁচ উপায়ে ঠিকঠাক থাকবে আপনার কম্পিউটার  » «   শ্রীমঙ্গলে সড়কে গাছ ফেলে গণডাকাতি, হামলায় আহত ৩০ : ২০টি গাড়িতে লুটপাট  » «   দেড় লাখ ইভিএম মেশিন কেনার প্রকল্প অনুমোদন  » «   ‘মাসুদ রানা’র ‘সোহানা’ শারলিন  » «   মৌলভীবাজারে ‘সনাফ’র হরতালের ডাক : প্রতিহত করবে আ.লীগ  » «  

সিসিক নির্বাচন : যেভাবে আরিফ ১৪০ ভোটে এগিয়ে



s.. (15)
প্রান্ত ডেস্ক
সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ১৩২ কেন্দ্রের বেসরকারী ফলাফলে বিএনপি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী এগিয়ে থাকলেও আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা হয়নি। ২৪ ও ২৭ নং ওয়ার্ডের দু’টি কেন্দ্রে ৩০ জুলাইয়ের নির্বাচনের দিন ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। এ দুই ভোটকেন্দ্রে আগামী ১১ আগস্ট ফের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরপর আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে নতুন নগরপিতার নাম। তবে পাল্টে গেছে পুরনো সব হিসেব-নিকেশ।
আরিফুল হক চৌধুরীর পক্ষ থেকে বুধবার দুপুরে জানানো হয়েছে ৩০১ জন ভোটার এলাকাতেই নেই; মৃত্যু ও প্রবাসে বসবাস এবং চাকুরিতে বদলির কারণে তারা ভোট দিতে পারবেন না। সেই হিসেবে তার বিজয় নিশ্চিত হয়ে গেছে।
ফলাফল পর্যালোচনা করে দেখা যাচ্ছে, স্থগিত দুটি কেন্দ্রের সব ভোটও যদি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান পান তবুও তিনি বিজয়ী হতে পারছেন না। তখনও আরিফ ১৪০ ভোটে এগিয়ে থাকবেন। ৩০ জুলাই ১৩২টি কেন্দ্রে ধানের শীষ প্রতীকে আরিফ পেয়েছিলেন ৯০ হাজার ৪৯৬ ভোট। নৌকা প্রতীকে কামরান পেয়েছিলেন ৮৫ হাজার ৮৭০ ভোট। দু’জনের ভোটের ব্যবধান ৪ হাজার ৬২৬। স্থগিতকৃত দুই ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ হাজার ৭৮৭। এর মধ্যে মারা গেছেন ও প্রবাসে রয়েছেন ২৯৮ জন ভোটার। চাকুরির কারণে আরও ৩ জন বদলি হয়েছেন অন্যত্র। এই হিসেবে দুই কেন্দ্রে ভোটের দিন ৩০১টি ভোট কাস্ট না হওয়ারই কথা। এগুলো বাদ দিলে এই কেন্দ্র দু’টিতে ভোটসংখ্যা দাঁড়ায় ৪৪৮৬টি। এই সবক’টি ভোটও যদি কাকতালীয়ভাবে কামরানের ভাগ্যে যায় তবুও তিনি বিজয়ী হতে পারবেন না।
সদ্য সাবেক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী জানিয়েছেন, সিসিকের স্থগিত হওয়া গাজী বুরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের মোট ভোটারের মধ্যে মারা গেছেন ৮০ জন ও বিদেশে আছেন ৮০ জন। এ কেন্দ্রে মোট ভোটার সখ্যা ২২২১।
অন্যদিকে স্থগিত হওয়া হবিনন্দী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের মোট ভোটার সখ্যা ২৫৬৬। মোট ভোটারের মধ্যে মারা গেছেন ৩৮ জন ও বিদেশে আছেন ১০০ জন, চাকুরী জনিত কারণে বদলী হয়েছেন ৩ জন।
গত ৩০ জুলাই সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ১৩৪টি কেন্দ্রের মধ্যে উক্ত দুই কেন্দ্র ছাড়া ১৩২টি কেন্দ্রের ফল ঘোষণা করেন সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান। এতে আরিফুল হক চৌধুরী তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের চেয়ে ৪ হাজার ৬২৬ ভোটে এগিয়ে আছেন।
ফলাফল ঘোষণাকালে রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, ১৩২টি কেন্দ্রের ভোট গণনায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীর প্রাপ্ত ভোট ৯০ হাজার ৪৯৬। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের প্রাপ্ত ভোট ৮৫ হাজার ৮৭০।
প্রসঙ্গত, সিলেট সিটি করপোরেশন মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯১ হাজার ৭৩২ জন। এর মধ্যে ভোট দিয়েছেন ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬৫৬ জন, যার মধ্যে বৈধ ভোট ছিল ১ লাখ ৯১ হাজার ২৮৯টি। বাতিল হয় ৭ হাজার ৩৬৭টি ভোট।

Developed by: