সর্বশেষ সংবাদ
ইলিয়াছ আলীর গাড়ি চালক আনসার আলীর মা-মেয়ে আজও অপেক্ষায়  » «   কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সংবাদ সম্মেলন : সাত দিনের মধ্যে মামলা প্রত্যাহার না করলে ক্লাস বর্জন  » «   ‘করের আওতায় আনা হবে সিএনজি অটোরিকশা মালিকদের’  » «   দীর্ঘ ২৫টি বছর পর…  » «   অবশেষে আরব আমিরাতে খুলেছে বাংলাদেশের শ্রমবাজার  » «   বালাগঞ্জে ‘দেশরত্ন শেখ হাসিনা সেতু’র ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন  » «   দক্ষিণ সুরমায় জোড়া খুনের মামলায় ৪৯ জন কারাগারে : ২ জনের জামিন  » «   প্রেমের টান বড় জোরদার : যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফরিদপুর  » «   অর্ধ মানুষরূপী এটা কি?  » «   ফের আলোচনায় ডিআইজি মিজান : সংবাদ পাঠিকাকে ৬৪ টুকরো করার হুমকি  » «   গোলাপগঞ্জে হামলার শিকার তরুণের মৃত্যু  » «   সাবেক মার্কিন ফার্স্ট লেডি বারবারা বুশ নেই  » «   ৪০ গুণ বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে ফুটবল বিশ্বকাপের টিকেট!  » «   প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লন্ডনে পৌঁছেছেন  » «   চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক আজ  » «  

২৫ মার্চ রাতে এক মিনিট অন্ধকার থাকবে সারাদেশ



doপ্রান্ত ডেস্ক: ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে যে নারকীয় হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল তার স্মরণে আগামী ২৫ মার্চ রাত ৯টা থেকে ৯টা ১ মিনিট পর্যন্ত সারাদেশে ব্ল্যাকআউট কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। মহান মুক্তিযুদ্ধ শুরুর প্রাক্কালে পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর নারকীয় নির্যাতন স্মরণে এই এক মিনিট সারাদেশ অন্ধকার রাখার কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে।
রবিবার (১১ মার্চ) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস ও স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচি নির্ধারণে আয়োজিত প্রস্তুতিমূলক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
সভায় সভাপতিত্ব করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বৈঠকে পুলিশের আইজি, র‌্যাবের ডিজি, বিজিবির মহাপরিচালক, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দুই বিভাগের সচিবসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
সভা শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে যে নারকীয় হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী সেই নির্মমতাকে স্মরণ করে এ বছরের ২৫ মার্চ রাত ৯টা থেকে ৯টা এক মিনিট পর্যন্ত এক মিনিটের ব্ল্যাক আউট কর্মসূচি পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। স্বতঃস্ফূর্তভাবে এ কর্মসূচি পালন করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানানো হচ্ছে। তবে সব ধরনের জরুরি সেবা যেমন হাসপাতাল, ফায়ার সার্ভিস ইত্যাদি এ কর্মসূচির আওতার বাইরে থাকবে।
এসময় তিনি জানান, পরদিন ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসেও দেশজুড়ে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। রাজধানী থেকে ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা থাকবে। তবে কোনও ধরনের নাশকতার হুমকি নেই।

Developed by: