সর্বশেষ সংবাদ
রাজ-শুভশ্রী এক বাঁধনে  » «   বাংলাদেশ নতুন যুগে প্রবেশ করেছে : প্রধানমন্ত্রী  » «   আগাম বন্যার আশঙ্কা  » «   ঈদে আসছে ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’  » «   বজ্রপাতে একদিনে সারাদেশে ৩০ জনের মৃত্যু  » «   জাতীয় অধ্যাপক মুস্তাফা নূরউল ইসলামের ইন্তেকাল  » «   জাতিসংঘ মিশন : সিলেটের ২০০ স্বপ্নবাজ তরুণের নেতৃত্বে হাওরসন্তান সোহাগ  » «   বিয়ানীবাজারে বুদ্ধি প্রতিবন্ধি যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার  » «   বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হচ্ছেন সোনম কাপুর আর আনন্দ আহুজা  » «   এসএসসি ফল পুনঃনিরীক্ষন শুরু : একাদশে ভর্তি ১৩ মে থেকে  » «   ষাঁড়ের গুতোয় কৃষকের মৃত্যু  » «   পা-ই তার সাফল্যের চাবিকাটি  » «   গাছ ভেঙে পড়ায় সিলেটের সাথে রেল যোগাযোগ বন্ধ  » «   এসএসসিতে সিলেটে পাস ৭০.৪২% : জিপিএ-৫ ৩১৯১ জন  » «   নিয়োগ চলছে কামা পরিবহন (প্রা. লি.)-এ।  » «  

কোন পণ্য নয় মানবাধিকার



মানবাধিকার নিয়ে আলোচনার কমতি নেই বর্তমান বিশ্বে। এত আলোচনা এবং পদক্ষেপ গ্রহণের প্রতিশ্রুতির পরও বিশ্বে মানবাধিকার নিশ্চিত হচ্ছে না কেন? বিশ্বের বড় বড় দেশগুলো তো মানবাধিকারের ব্যাপারে বেশ সোচ্চার। আর যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ–উৎকণ্ঠার বিষয়টি তো বিশ্ব–মিডিয়ায় বেশ ফলাও করে প্রচার হয়ে থাকে। কিন্তু খোদ যুক্তরাষ্ট্রেই মানবাধিকার নিশ্চিত হয়েছে কি? যুক্তরাষ্ট্রের নারীরা কর্মস্থল, স্বাস্থ্যসেবা থেকে কারাগার– সব ক্ষেত্রেই চরম বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। বিশ্বের যে ৭টি দেশ এখনও নারীর প্রতি বৈষম্যসংক্রান্ত জাতিসংঘ সনদে স্বাক্ষর করেনি, যুক্তরাষ্ট্র তার অন্যতম। এই উদাহরণ থেকে মার্কিন সরকারের দৃষ্টিভঙ্গির একটি পরিচয় পাওয়া যায়। মানবাধিকার আসলে কোনো প্রচারণার বিষয় নয়, মানবাধিকার কোনো পণ্যও নয়। মানবাধিকার আসলে একটি নৈতিক বিষয়। মানুষের মধ্যে যদি নীতিবোধ না থাকে তাহলে সে অন্যের অধিকার নিশ্চিত করবে কীভাবে? নীতিবোধের অভাবে মানবাধিকার বিষয়টি এখন প্রচারণা ও প্রহসনের বিষয়ে পরিণত হয়েছে। আদর্শ ও নীতিবোধের অভাবে বর্তমান বিশ্বে মানবাধিকার বিষয়টি যত উচ্চকণ্ঠে প্রচার করা হচ্ছে, ততই যেন মানবাধিকার পদদলিত হচ্ছে। বিশ্বের দেশে দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের মাত্রা বেড়েই চলেছে। অনাকাক্সিক্ষত এই পরিস্থিতি দূর করতে হলে প্রথমেই মানবাধিকারের প্রবক্তাদের প্রহসনের কৌশল থেকে সরে আসতে হবে। বিষয়টি তাদের না বোঝার কথা নয়।

Developed by: