সর্বশেষ সংবাদ
ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রদলের কমিটি : ঘোষণা উপজেলার, বাতিল জেলার  » «   ক্রীড়া সংগঠক আব্দুল কাদিরের মায়ের ইন্তেকাল  » «   রণবীর-দীপিকা বিয়ে নভেম্বরে?  » «   যাদুকর ম্যারাডোনার পায়ের অবস্থা করুণ  » «   একটু আগেবাগেই শীতের আগমণ  » «   চট্টগ্রামে আইয়ুব বাচ্চুর জানাযা বাদ আছর  » «   রাবণ পোড়ানো দর্শনকারী ভিড়ের উপর দিয়ে ছুটে গেলো ট্রেন : নিহত ৬০  » «   গোলাপঞ্জে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন উদ্বোধন করলেন শিক্ষামন্ত্রী  » «   বিসর্জনের দিন সিলেটে আসনে ‘দেবী’  » «   বিভিন্ন পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে মেয়র আরিফ  » «   সিলেটে স্বয়ংক্রিয় কৃষি-আবহাওয়া স্টেশন স্থাপিত  » «   শীতে ত্বক সজীব রাখতে শাক-সবজি খান  » «   সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর সংস্কার হচ্ছে প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে  » «   কোম্পানীগঞ্জে টাস্কফোর্সের অভিযানে পেলোডার মেশিন জব্দ  » «   ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনে সরকারকে নোটিশ  » «  

প্রশ্ন ফাঁস ও নকল বন্ধ



শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন শিক্ষকরা প্রশ্নপত্র ফাঁসের জন্য দায়ী। দুদক বলেছে, যেখানে প্রশ্ন ছাপা হয় সেখানকার কর্মচারীরা প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত। দুটোই সত্যি। তবে কতিপয় দুর্নীতিবাজ শিক্ষক হতে পারে স্কুল–কলেজের অথবা কোনো কোচিং সেন্টারের কিংবা বাসায় গিয়ে প্রাইভেট পড়ায় এবং প্রেসের দুর্নীতিবাজ কর্মচারী, অন্যদিকে নকলবাজ কিছু ছাত্র এবং অসাধু কতিপয় অভিভাবকও জড়িত। যেহেতু এদের সংখ্যা খুবই কম সেহেতু তাদের ধরে আইনের আওতায় আনা মোটেও কঠিন কাজ নয়।
নকল বন্ধে বহু নির্বাচনি প্রশ্ন বাতিল করা উচিত। উন্নত বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই এখন বহু নির্বাচনি প্রশ্নের প্রচলন নেই।
তাছাড়া সৃজনশীল প্রশ্নপত্রের প্রত্যেক ‘ক’ নম্বর প্রশ্নই একটি বহু নির্বাচনি প্রশ্ন। কাজেই সৃজনশীল প্রশ্ন ১০০ নম্বরের হলে সেখানে তো ১০টি বহু নির্বাচনি প্রশ্ন থাকছেই। গণিতের বহু নির্বাচনি প্রশ্নের সঠিক উত্তর তৈরি করতে একজন দক্ষ গণিত শিক্ষকেরই প্রায় ১ ঘণ্টা সময় লেগে যায়। সেখানে এত অল্প সময়ের মধ্যে পরীক্ষার্থীদের সঠিক উত্তর বের করা খুবই দুরূহ ব্যাপার। পরীক্ষার কেন্দ্রে প্রশ্ন নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কতিপয় দুর্নীতিবাজ শিক্ষক বহু নির্বাচনি প্রশ্নের সঠিক উত্তর বের করে এবং বিভিন্ন কৌশলে পরীক্ষার্থীদের মাঝে বিলি করে থাকে। যদিও সব উত্তর ঠিক হয় না।
প্রভাবশালী ব্যক্তিবর্গের প্রভাব থেকেও পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোকে সম্পূর্ণ মুক্ত রাখতে হবে। এই দুটো পদ্ধতি ঠিকভাবে পালন করা হলে নকল এবং প্রশ্নপত্র ফাঁস ৭০% হ্রাস পাবে। বিষয়টির প্রতি আমরা সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কৃর্তপক্ষের সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

Developed by: